Alparslan Buyuk Seljukluআল্প আরসলান সিজন ০১

আল্প আরসালান ভলিউম ৪ বাংলা সাবটাইটেল

সিজন ০২

এপিসোড ০৪

এপিসোডটি দেখতে নীচে যান।

আল্প আরসলান বুয়ুক সেলজুগ্লো সিরিজটি বীর মুসলিম যোদ্ধা সুলতান মুহাম্মদের জীবনকাহিনীর উপর ভিত্তি করে নির্মিত হয়েছে। মহান সেলজুক সাম্রাজ্যের সুলতান মুহাম্মদ ইসলামের ইতিহাসে একজন পরিচিত ব্যক্তিত্ব।

তিনি ১০৭১ সালে ঐতিহাসিক মলাজগীর্দ ময়দানে ক্রুসেডার বাইজেন্টাইনদের বিরুদ্ধে যুদ্ধে জয়লাভ করে, সকল তুর্কীদের আনাতলিয়ায় বসবাসের পথ উন্মুক্ত করে দেন। অসম্ভব সাহসীকতার জন্য তাকে “আল্প আরসলান” তথা সাহসী সিংহ উপাধি দেওয়া হয়।

এমরে কুনুর নির্মিত শেদাদ ইনজি পরিচালিত আকলি ফিল্মের এই সিরিজটি পূর্বে প্রচারিত উয়ানিস বুয়ুক সেলজুগ্লো সিরিজের সিকুয়েল। বারিস আরদোচ আল্প আরসলানের চরিত্রে অভিনয় করবেন। এছাড়াও ফারিয়ে এভজান সুলতানের স্ত্রী আকজা হাতুনের চরিত্রে, দিরিলিস আরতুগ্রুলে বাইজু নোইয়ানের চরিত্রে অভিনয়কারী বারিস বাচী তুঘরিল বে’র চরিত্রে অভিনয় করবেন। সুলতানের সঙ্গী হিসেবে উয়ানিস বুয়ুক সেলজুগ্লো এর মতো এর মতো এই সিরিজেও নিজামুল মুলক চরিত্রে থাকবেন, মেহমেদ ওজগোর। এক সাহসী সুলতানের বীরত্ব ও ভালোবাসার মহাকাব্য এই সিরিজে চিত্রিত হয়েছে। সার্ভার ০১ এ দেখতে সমস্যা হলে নীচে যান।

সার্ভার-০১

[এডটি শেষ হওয়ার পর ভিডিও প্লে করুন, ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে নীচে যান]


সেলজুকদের ইতিহাস

কিনিক বসতি থেকে সেলজুকদের উৎপত্তি। কিনিক, অঘুজদের মূল ২৪ টি শাখার অন্যতম। অঘুজ বসতি গুলো মূলত মধ্য এশিয়া ও দক্ষিণ পূর্ব রাশিয়ায় বসবাস করতো। ১১শ শতাব্দীর দিকে কিনিকদের একটি দলের গোত্রপ্রধানের নাম ছিলো সেলজুক। তারা সীরদরিয়া নামক নদীর তীরে বসবাস শুরু করে, পরবর্তীতে ইসলামের ছায়াতলে আশ্রয় নেয়। তারা প্রথম দিকে ইরানের শামানি সাম্রাজ্য ও পরবর্তীকালে গজনভীর মাহমুদের সীমান্ত রক্ষায় নিয়োজিত ছিলো।

সেলজুকের দুজন নাতি ছিলো। একজন চাঘরী (চারী) বে, অপরজনের নাম তুগরিল বে। পরবর্তীকালে এই চাগরি বে বৃহত্তর খোরাসান অঞ্চল নিয়ন্ত্রণ করতেন এবং তুগরিল বেগ ইরানের পশ্চিমাঞ্চল ও ইরাক, সিরিয়া, জর্ডান, তুরষ্কের কিছু অংশ অঞ্চলে একটি সাম্রাজ্যের ভীত গড়ে তোলেন।

সেলজুকরা ক্রমশ শক্তিশালী হয়ে উঠতে শুরু করলে, সীমান্তবর্তী অঞ্চলে তাদের প্রভাব বাড়তে থাকে, তখন গজনভীর সুলতান মাসুদ সাম্রাজ্যের হুমকি কথা চিন্তা করে সেলজুকদের সাথে ১০৪০ সালে যুদ্ধে জড়ান। যুদ্ধ শুরুর আগ-মুহুর্তে সেলজুকরা গজনভী সৈন্যদের উপর চোরাগোপ্তা আক্রমণ শুরু করে, সরবরাহ মজুত ব্যবস্থা নষ্ট করে তাদের পানিশূন্যতার মাঝে ফেলে দেন। ফলে গজনভীদের মনোবল ও শৃঙ্খলা বিনাশ হয়ে যায়। অবশেষে তুগরিল বে, চাগরি বে মাত্র ষোল হাজার সৈন্য নিয়ে গজনভীদের পঞ্চাশ হাজার সৈন্য, বারোটি কিংবা ষাঁড়টি হাতির বিরুদ্ধে জয়লাভ করেন।

তুঘরিল বে’র কোনো সন্তান ছিলো না। তাই তুঘরিল বেগের মৃত্যুর পর তার স্থলাভিষিক্ত হোন – চাগরি বে’র পুত্র মুহাম্মদ আল্প আরসলান যিনি ঐতিহাসিক মলাজগীর্দ ময়দানে ক্রুসেডারদের বিরুদ্ধে তুলনামূলক অনেক কম যোদ্ধা নিয়ে জয়লাভ করে আনাতলিয়াকে তুর্কীদের মাতৃভূমিতে রূপ দেন।

সার্ভার-০২

সার্ভার-০৩



ভিডিও দেখতে পারছেন না? ফেইসবুক ব্রাউজার থেকে লিংকে প্রবেশ করলে ভিডিও দেখতে সমস্যা হবে। তাই ক্রোম, ইউসি ব্রাউজার, ফায়ারফক্স কিংবা অন্য যেকোনো ব্রাউজারে লিংকটি অপেন করে ভিডিও প্লে করুন। তারপরও যদি কাজ না করে তাহলে তাহলে আপনার ওয়েবসাইটটি রিফ্রেশ করুন এবং কয়েক মিনিট পর আবার ট্রাই করুন। যদি ডিভাইসে এড ব্লকার অন করা থাকে, অফ করে দিন নাহয় ভিডিও দেখতে পাবেন না। ভিডিওর প্লে বাটন দেখতে না পেলে, ভিপিএন – ইউএস, জার্মানি, ইউরো ইত্যাদি রিজিয়নে কানেক্ট করে ট্রাই করুন।

(বিস্তারিত)

যারা দেখতে পারছেন না, তারা উপরের পন্থাগুলো অনুসরণ করলে, আর সমস্যা হওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই।

তবুও শুধুমাত্র বিশেষ প্রয়োজনে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন।

Related Articles

Back to top button